ব্যাকলিংক (Backlink) কী?

আমরা যখন কোন ওয়েবসাইটকে গুগলে র‍্যাঙ্ক করাতে চাই, তখন স্বভাবতই অন্যান্য বিষয়ের সাথে Backlink কথাটি চলে আসে। কি এই ব্যাকলিংক? এটা কেন ব্যবহার করতে হয়? এটার কীভাবে কাজ করে? আর এই ব্যাকলিংক আমরা কীভাবে তৈরি করতে পারি?

ব্যাকলিংক (Backlink) কী?

ব্যাকলিংক হচ্ছে একটি এক্সটারনাল লিংক (External Link) যা অন্য একটি ওয়েবসাইট থেকে আপনি আপনার সাইটে পেয়ে থাকেন। আরো সহজভাবে বললে, যখন অন্য কেউ তাদের ওয়েবসাইটের কোন এক কনটেন্টে আপনার সাইটের লিংক প্রকাশ করে, তখন তাকে Backlink বলে। 

একটা উদাহরণ দিচ্ছি।
মনে করুন আপনার একটি ওয়েব সাইট আছে এবং সেই সাইটের লিংকটি আপনি অন্য একটি সাইটে রাখলেন। 

অথবা অন্য কেউ আপনার সাইটের লিংকটি তার ওয়েবসাইটে ভিজিটরদের ভিজিট করার জন্য নিল। 

তাহলে যে সাইটে আপনার সাইটের লিংক প্রকাশ করা হলো, সেই সাইটে আপনি আপনার সাইটের জন্য একটি Backlink পাবেন।

আবার ধরুন, আপনার বন্ধু আপনাকে জিজ্ঞেস করলো, সে কিভাবে ওয়েব ডিজাইন ডিজাইন শিখতে পারে? আপনি তাকে উত্তর দিলেন ওয়েব ডিজাইন শিখতে কোর্সটিকার এই লেখাটি পড়ো। তাহলে, সেটি হয়ে গেল একটি ব্যাকলিংক

Backlink হচ্ছে নিজের সাইটের লিংক অন্য কোন সাইটে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে সাবমিট করা এবং সেই লিংকের মাধ্যমে ওই সাইটের ভিজিটরদের আপনার সাইটে নিয়ে আসা। এটা সরাসরি হতে পারে, পরোক্ষভাবে হতে পারে কিংবা উভয় পক্ষের সমঝোতার ভিত্তিতেও হতে পারে।

যেমন আপনি যদি কোন সাইটের নির্দিষ্ট একটি কনটেন্টে নিজের মতামত প্রকাশ করে তার সাথে আপনার সাইটের লিংকটিও সংযুক্ত করে দেন এবং ওই সাইটের এডমিন যদি কনটেন্টটি এ্যাপ্রুভ করে, তাহলে আপনি একটি Backlink পেয়ে গেলেন। 

আবার আপনি সরাসরি কোন ওয়েবসাইটের এডমিনের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন, যেন তারা তাদের পরবর্তী কোন কনটেন্টে আপনার সাইটকে উল্লেখ করে।

কেন ব্যাকলিংক ব্যবহার করবো ?

একটি সাইটের গুরুত্ব ও গ্রহণযোগ্যতা বাড়াতে Backlink বৃদ্ধির কোন বিকল্প নেই। আপনি যদি আপনার ওয়েবসাইটকে গুগল সার্চে শীর্ষে নিয়ে যেতে চান, তাহলে আপনাকে আপনার ওয়েবসাইট এসইও (সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজ) করতে হবে। 

আর অফপেজ এসইও এর ধাপগুলোর মধ্যে লিংক বিল্ড বা ব্যাকলিংক খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। 

একটি Backlink মানে, আপনার ওয়েবসাইটের কনটেন্টগুলোর প্রতি একটি সমর্থন। আর ১০০ টি ব্যাকলিংক মানে আপনার ওয়েবসাইটের কনটেন্টগুলোর প্রতি ১০০ টি সমর্থন। অর্থাৎ আপনার সাইটের যত Backlink রয়েছে, কনটেন্টগুলোর গ্রহনযোগ্যতাও তত বেশি।

আমরা যে কোন তথ্য জানার জন্য গুগলে সার্চ করি। তখন সার্চে ওই সকল ওয়েবসাইটগুলোই শীর্ষে অবস্থান করে যাদের ব্যাকলিংক বেশি। কারণ গুগল কখনোই চাইবে না, যে সাইটগুলোর জনসমর্থন নেই, সেই সাইটগুলো আপনার সামনে এনে দিক। 

আর এই গুগল সার্চ ইঞ্জিনের কাছে Backlink তৈরি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। সুতরাং যদি প্রতিনিয়ত আপনার সাইটের ব্যাকলিক বৃদ্ধি পেতে থাকে তখন সার্চ ইঞ্জিন আপনার সাইটকে গুরুত্ব বেশী দেবে এবং র‌্যাঙ্ক প্রদান করবে।

Backlink কি ভিজিটর বাড়াতে সাহায্য করে?

অব্যশই। ব্যাকলিংক যেভাবে আপনার সাইটকে গুগল র‌্যাঙ্ক পেতে সাহায্য করে, ঠিক ভিজিটর বাড়াতেও সাহায্য করে। যখন কোন ওয়েবসাইটের কনটেন্ট বা পোস্টে আপনার ওয়েবসাইটের লিংক করানো থাকে, তখন ওই ওয়েবসাইট থেকে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর আসার সম্ভাবনা কয়েকগুণ বেড়ে যায়।

আমরা কীভাবে Backlink পেতে পারি?

কোন সাইটের কোন কমেন্টে বা মন্তব্যে বা অন্য কোথাও যদি আপনার সাইটের লিংক দেয়া থাকে তাহলে সেটা আপনার সাইটের জন্য ব্যাকলিংক হিসেবে ধরে নেয়া হবে। যদিও এসইও'র ক্ষেত্রে এটি একটি পুরোনো পদ্ধতি। যা বর্তমানে এড়িয়ে চলতে বলা হয়ে থাকে। 

অনেক ফোরাম আছে যেখানে কেউ তার মতামত ব্যক্ত করার সময়ে যদি আপনার সাইটের লিংক উল্লেখ করে তাহলে আপনি একটি ব্যাকলিংক পাবেন। 

আপনি আরো অনেক ভাবেই Backlink পেতে পারেন। যেমন:
  1. কোন ব্লগসাইটে গেস্ট ব্লগার হিসেবে আর্টিকেল লেখার মাধ্যমে ফোরাম টিউনিং এর মাধ্যমে
  2.  কোন ব্লগে মন্তব্য করার মাধ্যমে
  3. কোন ফোরামে মন্তব্য করার মাধ্যমে
[বি.দ্রঃ আপনি চাইলে BidyaPremi.com এও গেস্ট ব্লগার হিসেবে আর্টিকেল লিখতে পারেন আপনার ওয়েবসাইটের জন্য]

ব্যাকলিংক পাওয়ার এই পদ্ধতিগুলো সার্চ ইঞ্জিন সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকে। তবে এর বাইরেও আপনি অন্যান্য উপায়ে ব্যাকলিংক পেতে পারেন। যেমন কোন ওয়েবসাইটের সাথে লিংক এক্সচেঞ্জ অর্থাৎ অন্য সাইট এডমিনের সাথে সমঝোতার মাধ্যমে। 

বিভিন্ন সাইটে বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের মাধ্যমে আপনি ব্যাকলিংক সংগ্রহ করতে পারেন। এছাড়াও আপনি চাইলে Backlink কিনতেও পারেন।

যেকোন সাইট থেকে পাওয়া ব্যাকলিংক কি সমান গুরুত্বপূর্ণ?

একদমই না। আপনাকে ব্যাকলিংক দেবে, এরকম শতশত সাইট হয়তো আপনি পাবেন। কিন্তু গুগলে আপনার সাইট র‌্যাঙ্ক পাওয়ার জন্য সব ব্যাকলিংকই একই রকমের গুরুত্বপূর্ণ না। আপনাকে সব সময় ওই সকল সাইট থেকেই ব্যাকলিংক নেয়ার চেষ্টা করতে হবে, যাদের নিজেদের র‌্যাঙ্কিং ভালো।

Conclusion:

আশা করি আমি আপনাদের ব্যাকলিংক (Backlink) কী বিষয়ে সাধারণভাবে বুঝাতে পেরেছি । আপনি আপনার ওয়েবসাইটের জন্য আমাদের সাইটে গেস্ট হিসেবে আর্টিকেল পাঠাতে পারেন । আটিকেল পাঠাতে এখানে যোগাযোগ করুন বা ইমেইল করুন ।
Next Post Previous Post