৬ষ্ঠ শ্রেণির ১৪তম সপ্তাহের কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট সমাধান

৬ষ্ঠ শ্রেণির ১৪তম সপ্তাহের কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট সমাধান নিয়ে বরাবরের মত হাজির হয়েছি । মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে গত ৩২/০৮/২০২১ ইং তারিখে ১৪তম সপ্তাহের জন্য এসাইনমেন্ট প্রশ্ন প্রকাশ করা হয় । ১৪তম অ্যাসাইনমেন্ট PDF Download করতে এখানে ক্লিক করুন । 

৬ষ্ঠ শ্রেণির ১৪তম সপ্তাহের কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট সমাধান

৬ষ্ঠ শ্রেণির ১৪তম সপ্তাহের কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট সমাধান
৬ষ্ঠ শ্রেণির ১৪তম সপ্তাহের কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট সমাধান

Class 6 Agriculture Assignment 14th week Answer

৬ষ্ঠ শ্রেণির ১৪তম সপ্তাহের কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট সমাধান
৬ষ্ঠ শ্রেণির ১৪তম সপ্তাহের কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট সমাধান


অধ্যায় ও অধ্যায়ের শিরােনামঃ 
দ্বিতীয় অধ্যায়: কৃষি প্রযুক্তি ও যন্ত্রপাতি
পাঠ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্ত পাঠ নম্বর ও বিষয়বস্তুঃ
পাঠ ১: কৃষি প্রযুক্তির ধারণা পাঠ 
২: কৃষি প্রযুক্তির ব্যবহার পাঠ 
৩: কৃষি যন্ত্রপাতির ধারণা পাঠ 
৪: হস্তচালিত কৃষি যন্ত্রপাতির ব্যবহার পাঠ 
৫: শক্তিচালিত কৃষি যন্ত্রপাতির ব্যবহার পাঠ 
৬: ভালাে বীজ বাছাইকরণ পাঠ ৭: কাঁচা ঘাস সংরক্ষণ পাঠ 
৮: খাঁচায় মাছ চাষ পাঠ 
৯: ফসল উৎপাদনের স্থানীয় কৃষি যন্ত্রপাতি ও ব্যবহার পাঠ 
১০: মাছ ধরার স্থানীয় যন্ত্রপাতি ও ব্যবহার

অ্যাসাইনমেন্ট বা নির্ধারিত কাজ
বাংলাদেশের জনসংখ্যা দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাড়তি মানুষের খাদ্য চাহিদাপূরণের জন্য নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবিত হচ্ছে। বদরপুর গ্রামের কৃষি সমাবেশে কৃষিবিদ ড. হাসান ফসল উৎপাদন, গৃহপালিত প্রাণী পালন, মৎস্য চাষ ও বনায়নের উপর নানা ধরনের কৃষি প্রযুক্তির ধারণা ব্যক্ত করেন। 

তুমি কী মনে কর কৃষি প্রযুক্তিগুলাে ব্যবহার করে বাংলাদেশের কৃষি উন্নয়ন সম্ভব? 

 
নিচের প্রশ্নগুলাের উত্তরের মাধ্যমে তােমার মতামত উপস্থাপন কর। 
১। কৃষি প্রযুক্তি কী? 
২। কৃষি প্রযুক্তির বিষয়গুলাে কী কী? 
৩। বিষয়ভিত্তিক কৃষি প্রযুক্তিগুলাের তালিকা তৈরি কর। 
৪। জমি চাষ না করে কীভাবে তুমি দানা জাতীয় ফসল চাষ করবে? 
৫। বিদ্যুৎবিহীন গ্রামীণ পরিবেশে একজন কৃষক। কীভাবে ডিম সংরক্ষণ করবে? 
৬। বন্যা মৌসুমে হাওর এলাকায় তুমি কোন প্রযুক্তিতে মাছ চাষ করবে এবং কেন? 
৭। তুমি গবাদি পশুর একটি ফার্ম করতে চাইলে শীত মৌসুমে পশুগুলাের জন্য কীভাবে কাঁচাঘাসের অভাব পুরণ করবে?

নির্দেশনাঃ
১. শিক্ষার্থীরা দ্বিতীয় অধ্যায়ের পাঠ ১, ২, ৭ ও ৮ এর আলােকে কৃষি প্রযুক্তিগুলাে শনাক্ত করবে এবং এগুলাে সম্পর্কে ধারণা নিবে। 
২. শিক্ষার্থীরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রয়ােজনীয় তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা করবে। 
৩. শিক্ষার্থীরা নিজ পরিবারের সদস্যদের সাথে আলােচনা করে কৃষি প্রযুক্তিগুলাে সম্পর্কে জানবে ৪. নিজ বাড়িতে বিদ্যমান প্রযুক্তিগুলাের ব্যবহার উপযােগিতা সম্পর্কে জানবে।  
৫. কোনাে তথ্য উৎস থেকে অবিকল (হুবহু) কোনাে তথ্য লিখে অ্যাসাইনমেন্ট জমা দেয়া যাবে না। 
৬. নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে হবে। ৭. শিক্ষার্থীদের নিজ হাতে অ্যাসাইনমেন্ট লিখতে হবে। 
৮. শিক্ষার্থীদেরকে তাদের পিতামাতা, ভাইবােন, আত্মীয়স্বজন, শিক্ষকগণ লিখে দিলে তা বাতিল হবে। 
৯. যে কোনাে কাগজ ব্যবহার করা যাবে। 
১০. ১ম পৃষ্ঠায় নাম, শ্রেণি, রােল, বিষয়, অ্যাসাইনমেন্টের শিরােনাম স্পস্টভাবে লিখতে হবে।

 কৃষি শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান

১. বাংলাদেশের জনসংখ্যা বাড়ছে। বাড়তি লােকের জন্য অতিরিক্ত খাদ্য ও অন্যান্য চাহিদা বেড়ে যায়। কিন্তু জমির পরিমান বৃদ্ধি ত পাই না বরং কমে যায়। তাই অল্প জমিতে অধিক ফসলের প্রযােজনে আমাদের কৃষি প্রযুক্তির উপর নির্ভর করতে হয় কৃষি প্রযুক্তি কৃষি সমস্যা সমাধানের জন্য গবেষণালব্ধ জ্ঞান ও কলাকৌশলকে কৃষি প্রযুক্তি বলে। কৃষি প্রযুক্তির প্রধান বৈশিষ্ট্য হল -

(ক) এর মধ্যে নতুনত্ব থাকবে।
(খ) কৃষিকাজ সহজ করবে
(গ) অধিক উৎপাদনের নিশ্চয়তা থাকবে। 
(ঘ) খরচ কম কিন্তু লাভ বেশি হবে।


২. কৃষি সমস্যা সমাধানের জন্য গবেষণালব্ধ জ্ঞান ও কলাকৌশলকে কৃষি প্রযুক্তি বলে। কৃষি এখন শুধু ফসল উৎপাদনের ব্যাপার নয়। শুধু পশু- পাখি পালনও নয়। কয়েকটি উৎপাদন ক্ষেত্র নিয়ে কৃষির বিকাশ ঘটেছে। তেমনি প্রত্যেকটি উৎপাদন ক্ষেত্রের প্রযুক্তিও বিকাশ লাভ করেছে। ফসল উৎপাদন পশু - পাখি পালন, মৎস্য চাষ , বনায়ন এসব বিষয় নিযেই কৃষি। তাই কৃষি প্রযুক্তি বলতে এই বিষয়গুলাে সংশ্লিষ্ট প্রযুক্তিকে বুঝায়।


৩. কৃষি প্রযুক্তির বিষয়ভিত্তিক তালিকা নিচে দেয়া হল -
৬ষ্ঠ শ্রেণির ১৪তম সপ্তাহের কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট সমাধান


৪. অনেকসময় জমি চাষ না করেই দানা জাতীয় ফসল ( যেমন- ভুট্টা) চাষ করা যায়। বর্ষার পানি জমি থেকে নেমে গেলে জমি কাদাময় থাকে। এমন সময় জমি চাষ না করেই ঐ জমিতে ভুট্টার বীজ রােপণ করলে ভাল ফলন হয়। এতে করে খরচ ও শ্রম দুটোই কম লাগে।


৫, আধুনিক কৃষি 
প্রযুক্তি ব্যবহার করে কৃষকরা হাঁস-মুরগির ডিম সংরক্ষণ করতে পারে। তবে তার জন্য বিদ্যুৎ সরবরাহের প্রযােজন হয়। আবার বিদ্যুৎ ছাড়াও বিশেষ উপায়ে ডিম সংরক্ষণ করা যায়। নিচে এই পদ্ধতির বর্ণনা দেয়া হল সাধারণত ডিম ৫/১০ দিনের বেশি ভাল থাকে না। 

ঘরের মেঝেতে গর্ত করে সেই গর্তে হাঁড়ি বসিয়ে ডিম রাখা যায়। গর্তে হাঁড়ির চারদিকে কাঠ কয়লা রেখে পানি দিয়ে ভিজিয়ে রাখলে ডিম ঠাণ্ডা থাকে এবং এভাবে ২০/২৫ দিন পর্যন্ত ডিম ভাল থাকে।

৬. বন্যা মৌসুমে হাওড় এলাকায় আমি খাঁচায় মাছ চাষ করব। এটি এক ধরনের কৃষি প্রযুক্তি। এই পদ্ধতিতে স্রোতহীন বা কম স্রোতের পানিতে খাঁচা তৈরি করা হয়। খাঁচার উপরের দিকে মাছের খাদ্য সরবরাহ করা হয়। 

এই খাঁচার চারিদিকে জাল দিয়ে ঢাকা থাকে ফলে মাছ খাঁচার বাহিরে যেতে পারে না। বন্যা মৌসুমে হাওড় এলাকার পুকুর , বিলের পানি উছলে যায়। আর এই পানির সাথে চাষ করা মাছও বাহিরে চাষিরা ক্ষতিগ্রস্থ হয় চলে যায়। এর ফলে মাছ। হয়। তাই বন্যা মৌসুমে হাওড় এলাকায় আমি খাঁচায় মাছ চাষ করব।

৭. শীতকালে অনেক স্থানেই ঘার্সের অভাব দেখা দেয়। তখন পশুকে মান সম্মত খাবার দেয়া কষ্টকর হয়ে পড়ে। তাই বর্ষাকালে কাঁচা ঘাস সংরক্ষণ করে এই সমস্যা দূর করা সম্ভব। কাঁচা ঘাস সংরক্ষণ পদ্ধতিকে সাইলেজ বলা হয়। এতে ঘাসের পুষ্টিমানের কোন পরিবর্তন হয় না। 

যে নির্দিষ্ট স্থানে বা গর্তে ঘাস ঘাস রাখা হয় তাকে বলা হয় সাইলােপিট। এই স্থানে বাযু রােধক অবস্থা তৈরি করা হয়। এই অবস্থায় ঘাসে লাষ্টিক এসিড তৈরি হয় যা কাঁচা ঘাস সংরক্ষণে কাজ। করে। তাই আমি গবাদিপশুর ফার্ম করতে চাইলে শীতকালে পশুর খাদ্য সমস্যা দূর করার ক্ষেত্রে উপরােক্ত পদ্ধতি প্রয়ােগ করব।

2. ৬ষ্ঠ শ্রেণির হিন্দু ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা এসাইনমেন্ট সমাধান ১৪তম সপ্তাহ 

Conclusion:

এই ছিল ৬ষ্ঠ শ্রেণির ১৪তম সপ্তাহের কৃষি শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট এর নমুনা সমাধান । আশা করি শিক্ষার্থীরা উপরোক্ত আলোচনা থেকে সমাধান করার ধারনা পাবে ।

Last Line: ৬ষ্ঠ শ্রেণির ১৪তম সপ্তাহের কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট সমাধান

Post a Comment

0 Comments